নীলফামারীর কৃষকরা আলু চাষে ব্যস্ত

নীলফামারীর কৃষকরা আলু চাষে ব্যস্ত সময় পার করছেন। এবারের দীর্ঘ বন্যার পর ফসলের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে আলু চাষ শুরু করেছেন নীলফামারী জেলার চাষিরা। হিমাগার থেকে বীজ উত্তোলন,  জমি তৈরি, আগাছা পরিষ্কার, সার প্রয়োগ এবং প্রস্ততকৃত জমিতে আলু রোপণে ব্যস্ততা বেড়েছে চাষিদের।

বন্যার পানি জমি থেকে নামতে দেরি হওয়ায় আলু রোপণ কিছুটা বিলম্বিত হচ্ছে। তবে চলতি মৌসুমে ব্যাপক প্রস্ততি দেখা যাচ্ছে চাষিদের মাঝে। এদিকে, উঁচু শ্রেণির জমিতে আগাম জাতের আলু উত্তোলন শুরু হয়েছে।

আলু চাষি আইয়ুব আলী বলেন, আমার দেড় বিঘা উঁচু জমিতে আলুর বীজ রোপণ করেছি। গাছ হয়েছে আড়াই থেকে তিন ইঞ্চির মতো। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে আলুর বাম্পার ফলন হওয়ার আশা করছি।

আরেক কৃষক আশরাফ আলী জানান, এবার দুই বিঘা জমিতে আলু রোপণের প্রস্ততি সম্পন্ন করেছি। আশা করি, আবহাওয়া ভালো থাকলে দুই-একদিনের মধ্যে জমিতে আলু রোপণ করতে পারবো। এলাকায় শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। তাই জমি প্রস্তত হওয়ার পরও আলু রোপণে দেরি হচ্ছে। এবার অতিরিক্ত খরচ হওয়ার আশঙ্কা করছি। তবে বাজারে দাম ও ফলন ভালো হলে খরচের টাকা পুশিয়ে নেওয়া যাবে।

জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ওবায়দুর রহমান বলেন, এখানকার পলি ও বেলে দোঁয়াশ মাটিতে আলুর বাম্পার ফলন হয়। এবার আবহাওয়া অনকূলে থাকায় আগাম জাতের আলুসহ ২২ হাজার হেক্টর জমিতে আলু চাষের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কাজ করছে কৃষি বিভাগ।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...