টমেটো চাষে স্বাবলম্বী আব্দুস সাত্তার

সাতক্ষীরার কলারোয়ার আব্দুস সাত্তার গ্রীষ্মকালীন টমেটো চাষে স্বাবলম্বী হয়েছেন। এই উপজেলার মাটি টমেটো চাষের জন্য উর্বর হওয়ায় ফলন বেশি পাওয়া যায়। বর্তমানে প্রায় শতাধিক কৃষক মান্দার তলা মাঠে টমেটোর চাষ করেছে। দিন দিন টমেটোর চাষ বেড়েই চলেছে।

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় সবজি চাষের পাশাপাশি তিন শতক জমিতে ২০০৮ সালে পরীক্ষামূলকভাবে বারি -৮ জাতের গ্রীষ্মকালীন টমেটো আবাদ শুরু করে আব্দুস সাত্তার নামে এক কৃষক। তিনি উপজেলার কামারালী গ্রামের বদরউদ্দীন সানার ছেলে। প্রথম বছরে টমেটোর ভাল ফলন পাওয়ায় তার টমেটো ছাষে তার আগ্রহ আরো বেড়ে যায়। আর এ টমেটোর বাজারে চাহিদা থাকায় ভালো দামে বিক্রি করে সাবলম্বী হয়েছেন তিনি। তার সাফল্য দেখে প্রতি বছরই কামারালী গ্রামে সবজি চাষির সংখ্যা বেড়েই চলেছে। বর্তমানে প্রায় শতাধিক কৃষক মান্দার তলা মাঠে টমেটোর চাষ করেছে। চলতি মৌসুমে তার ২০ শতক জমির টমেটো ক্ষেত থেকে প্রতিদিন প্রায় ১০০ কেজি টমেটো মাঠ থেকে পাইকারি ব্যবসায়ীরা ক্রয় করছে কেজি প্রতি ৬৫ থেকে ৭০ টাকা দরে।

টমেটো চাষি আব্দুস সাত্তার বলেন, আমি বিগত ১৪ বছর যাবত ধান, মাছ ও সবজির চাস করছি। এর মধ্যে সব থেকে লাভজনক ফসল গ্রীষ্মকালীন টমেটো। কৃষি অফিসের সহযোগিতায় আমিসহ প্রায় শতাধিক কৃষক নিরাপদ এ টমেটো চাষ করে সফলতা পেয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ১ বিঘা জমিতে ধানের আবাদ করলে সাড়ে ৩ মাসে ২০ মণ ধান পাওয়া যায়। যার খরচ অনেক বেশি। আর গ্রীষ্মকালীন টমেটো আবাদ করে মৌসুমের ৬ মাসে প্রতি বিঘাতে প্রায় ৩০০ মনের মত ফল বিক্রি করা যায় যার গড় বাজার মূল্য ৫০ টাকা করে হলে বিঘাতে প্রায় সাড়ে ৫-৬ লক্ষ টাকার ফল বিক্রি করা যায়। খরচ বাদে মৌসুম শেষে দেড় থেকে দুই লক্ষ টাকা লাভ থাকে। এই টমেটোর চাষ লাভজনক হওয়ায় দিন দিন এর চাষ বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে ডিজেল, সার ও কিটনাশকের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন তারা।

যুগিখালী ইউনিয়নের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা তুষার কান্তি সরকার বলেন, বর্তমানে কলারোয়া উপজেলায় প্রায় ৬৫ হেক্টর জমিতে ১৫০ জন কৃষক এই টমেটো চাষ করেছেন। আব্দুস সাত্তারসহ সাবলম্বী হয়েছেন অনেক কৃষক, কর্মসংস্থান হয়েছে দেড় হাজার শ্রমিকের। এই জাতের টমেটো রোপনের ৭৫ থেকে ৮০ দিন পর গাছ থেকে ফল পাওয়া যায় ৬ মাস পর্যন্ত। আর বাজারদর ভালো থাকায় লাভবান হয় কৃষক।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ আবুল হোসেন মিয়া বলেন, গ্রীষ্মকালীন টমেটো অত্যন্ত লাভজনক সবজি হওয়ায় এ অঞ্চলের কৃষদের টমেটো চাষে আগ্রহ বাড়ছে। কলারোয়ার মাটি ও আবহাওয়া টমেটো চাষের জন্য খুবই উপযোগী। আগামীতে এই টমেটোর চাষ আরো বৃদ্ধি করতে কৃষি বিভাগ কাজ করে যাচ্ছে।

 

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...