পাঁচ লাখ টনের বেশি চাল রপ্তানি মিয়ানমারের দুই মাসে

Ads

২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম (অক্টোবর ও নভেম্বর) দুই মাসে পাঁচ লাখ টনের বেশি চাল রপ্তানি করেছে মিয়ারমার। মিয়ানমার রাইস ফেডারেশন সম্প্রতি প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

এ রপ্তানিতে দেশটির আয় সাড়ে ১৯ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে। দুই মাসে পাঁচ লাখ টনের বেশি চাল রপ্তানির বিষয়ে খবর প্রকাশ করেছে সিনহুয়া ও এগ্রিমানি। চাল উৎপাদনকারী ও রপ্তানিকারক দেশগুলোর বৈশ্বিক শীর্ষ তালিকায় মিয়ানমারের অবস্থান সপ্তম।

মিয়ানমার রাইস ফেডারেশনের তথ্য অনুযায়ী, ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে মিয়ানমার থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে ৫ লাখ ২০ হাজার ৮৮৪ টন চাল রপ্তানি হয়েছে। এর মধ্যে ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৫৯৭ টন সাধারণ চাল। বাকি ১ লাখ ৭৫ হাজার ২৮৭ টন ভাঙা চাল।

২০২০-২১ অর্থবছরের শুরুতে মন্দার মুখে পড়েছে মিয়ানমারের চাল রপ্তানি খাত। অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে খাদ্যপণ্যটির রপ্তানি আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় ২ লাখ ৫০ হাজার টন কমেছে।২০১৯-২০ অর্থবছরে মিয়ানমার থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে সব মিলিয়ে ২৫ লাখ টনের বেশি চাল রপ্তানি হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে দেশটি চাল রপ্তানি লক্ষ্য পূরণে সক্ষম হয়েছে।

২০২০-২১ অর্থবছরের অক্টোবর ও নভেম্বরে চাল রপ্তানি করে মিয়ানমার সব মিলিয়ে ১৯ কোটি ৬৫ লাখ ডলার আয় করেছে বলে বিবৃতিতে জানিয়েছে মিয়ানমার রাইস ফেডারেশন। এ সময় দেশটি থেকে রফতানি হওয়া চালের ৭১ দশমিক ৫৩ শতাংশ সমুদ্রপথে রফতানি গন্তব্যে গেছে। বাকি ২৮ দশমিক ৪৭ শতাংশ চাল রফতানি হয়েছে স্থল সীমান্তপথে প্রতিবেশী দেশগুলোয়।

অপরদিকে মিয়ানমারের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ট্রেড প্রমোশন বিভাগের পরিচালক মিও থু বলেন, চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরে সব মিলিয়ে ২০ লাখ টন চাল রফতানির লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

Ads
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...